শীতে খিচুড়ি-ইলিশ রাঁধার পদ্ধতি / শীতকালীন খাবার / Best Winter Recipes of Bangladesh.

Abdul Motaleb

যদিওখিচুড়ি এবং ইলিশ মাছ- দুটো মজাদার খাবারের সঙ্গে বর্ষাকাল ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে। তবে,এই হাল্কা শীতেও ইলিশ-খিচুড়ির জুড়ি নেই।

খিচুড়ি রান্নার পদ্ধতি সবাই জানে। ইলিশ মাছেরও নানা ধরনের পদ রান্না করতে পারেন। তবে খিচুড়ি আর ইলিশ মাছ- দুটির মিশ্রনে নতুন ধরনের বাঙালি খাবার ইলিশ-খিচুড়ি রান্নার পদ্ধতি হয়তো অনেকেরই জানা নেই। তাই দেখে নিন এই রেসিপিটা-

খিচুড়ির জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

গোবিন্দভোগ চাল ৫০০ গ্রাম,মুগ ডাল ২০০ গ্রাম, হলুদ ১ চা চামচ,তেজপাতা ২-৩টি,তেল হাফ কাপ,ঘি ২ টেবিল চামচ,কাঁচালঙ্কা কয়েকটা ফালি করা,পেঁয়াজ কুচি হাফ কাপ,আদা বাটা ১ চা চামচ,রসুন বাটা ১ চা চামচ,গরম মশলা পরিমানমত,নুন স্বাদমত

ইলিশের জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

কাঁটাছাড়ানো ইলিশ মাছের কিমা ১ কাপ,আদা বাটা ১ চা চামচ,রসুন বাটা ১ চা চামচ,সর্ষে বাটা ১ চা চামচ,পাঁউরুটি ২ টুকরো,কর্ণফ্লাওয়ার ১ টেবিল

চামচ,পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ,নুন স্বাদমত।

প্রণালীঃ
ইলিশ মাছের কিমাগুলি সমস্ত উপকরণ দিয়ে মেখে ৩০ মিনিট ম্যারিনেট করতে রেখে দিন। ডাল ধুয়ে আধঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে সেদ্ধ করে নিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভেজে নিয়ে তারমধ্যে আদা বাটা,রসুন বাটা,হলুদ গুঁড়ো ও তেজপাতা দিয়ে কিছুক্ষন রান্না করুন। এরপর হাঁড়িতে সিদ্ধ চাল,ডাল দিয়ে মশলাগুলি ভালভাবে মিশিয়ে নিন। এর মধ্যে অন্য একটি পাত্রে মাঝারি আঁচে ইলিশ ছোট ছোট বল আকারে গড়ে নিয়ে ডোবা তেলে ভেজে তুলুন। খিচুড়ির ভাত ফুটে গেলে ভাঁজে ভাঁজে ইলিশ বল দিয়ে অল্প আঁচে মিনিট ১০ থেকে ১৫ বসিয়ে রাখুন। তারপর উপরে ঘি এবং গরমমশলা দিয়ে নামিয়ে নিন। তাহলেই তৈরি আপনার ছুটির দিনের নতুন বাঙালি খাবার খিচুড়ি-ইলিশ।

http://abdulmotalebsujon.blogspot.com/2015/11/best-winter-recipes-of-bangladesh.html

One clap, two clap, three clap, forty?

By clapping more or less, you can signal to us which stories really stand out.