এস ই ও (SEO) কিভাবে করে ?কিভাবে এস ই ও (SEO) শুরু করব?

এস ই ও (SEO) হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন মানে কিছু কাজ করা যা করলে ১টা অয়েবসাইটকে গুগলে সার্চ করলে পাওয়া যাবে।যেকানে কি ওয়ার্ড রিসার্চ ,অন পেইজ ,অফপেইজ অপ্টিমাইজেশন সহ আরো অনেক কাজ করতে হয়।

আপনি একটা ওয়েবসাইট অনেক কষ্ট করে অনেক টাকা খরচ করে করলেন,যা অনেক তথ্যবহুল এবং আশা করল যে অনেক ভিজিটর পাবে,কিন্ত তা পাচ্ছে না।কারন গুগলে সার্চ দিলে প্রথম ২পেইজ এ এটি আসেনা।তাই মানুষ আপনার সাইটে ডুকেও না। আজ আমি দেখাবো কিভাবে এসইও শুরু করতে হয় ।তাই কিছু সহজ বিষয়গুলি এখন দেখাব যা করতে পারলে আপনি কোন পেশাদার লোকের সাহায্য ছাড়াই কোন ওয়েবসাইটের ভালোমানের সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন বা এস ই ও (SEO) করতে পারবেন।

ইন্টারনেট এ অনেক সার্চ ইন্জিন আমরা দেখে থাকি। যেমন: গুগল,ইয়াহু,বিং ইত্যাদি।আপনি যদি আপনার পেইজ এর জন্য এই কাজ গুলো ধাপে ধাপে করতে পারেন,তাহলে সব সার্চ ইঞ্জিনেই আপনার সাইটি সবার উপরে আসবে।

এজন্য প্রথমে ২ ধরনের কাজ করতে হবে।

১)অন পেজ এসইও বেসিক : যে কাজ ওয়েবসাইটের ভিতরে করা হয় তাকে অন পেইজ এসইও বলে। যেমন: টাইটেল ট্যাগ,কনটেন্ট,কিওয়ার্ড ইত্যাদি ।

আপনার ওয়েবসাইটের মেইন পেইজে বিশেষ করে হোম পেইজ কিছু বেসিক অন পেজ অপ্টিমাইজেশান এর উপাদান রাখতে হবে।

অন সাইট অপ্টিমাইজেশান এর কিছু অনিবার্য নিয়মঃ

অন সাইট অপ্টিমাইজেশন এ আমরা অতি লোভে অনেক সময় একটি পেইজ এ অনেকগুলো কীওয়ার্ড ডুকিয়ে দেই,যেটা হচ্ছে অনেক বড় বোকামী। এই জন্য গুগুল পেইজটিকে শাস্তি স্বরূপ প্রথম পেইজ থেকে বের করে দেয়।

কাজটি কখনো করা যাবে না। পেইজ এ মাত্র ৫টি কীওয়ার্ড ঠিকভাবে দিতে পারলেই যথেষ্ট । এর পর ও লাগলে কীওয়ার্ড এর প্রতিশব্দ ব্যাবহার করতে পারি।

এইকাজটি করার জন্য আমরা keyword planner টুলটি ব্যাবহার করতে পারি। এখানে যেকোন একটি কীওয়ার্ড লিখলে অনেক কীওয়ার্ড আসবে যা থেকে সহজেই আমরা সমার্থক শব্দের ধারনা নিতে পারি।

ধাপ-১ঃ টাইটেলঃ প্রতিটি মানুষ,জীবজন্তু,জিনিসপত্র নাম দ্বারা পরিচিত। আপনি যদি গ্লাস এর নাম কাপ রেখে, একজন কে বলেন আমার কাপটি দাও ,তাহলে সে গ্লাস এর পরিবর্তে কাপই আনবে। সেটা আপনাকে ছাড়া পৃথিবীর অন্য কেউ খুজে পাবে না।বুজতেই পারছেন টাইটেল সঠিক হওয়া কত জরুরী ।

টাইটেল এ 70 টি অক্ষর বা তার কম হলে ভালো এবং আপনার ব্যবসা বা ব্র্যান্ডের নাম এবং কীওয়ার্ডগুলি তার সাথে সম্পর্কযুক্ত হতে হবে। এই ট্যাগটির জন্য এইচটিএমএল কোডের একদম উপরে অবস্থিত <HEAD> </ HEAD> ট্যাগগুলির মধ্যে এই ট্যাগটি দেখবেন রাখা আছে।

ধাপ ২- ম্যাটা ডেস্ক্রিপশানঃ

Meta description

<meta name= ‘‘description” content= ‘‘এস ই ও (SEO) হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন মানে কিছু কাজ করা,যা করলে ১টা অয়েবসাইটকে গুগলে সার্চ করলে পাওয়া যাবে।যেকানে কি ওয়ার্ড রিসার্চ ,অন পেইজ ,অফপেইজ অপ্টিমাইজেশন সহ আরো অনেক কাজ করতে হয়”/>

আপনার ওয়েবসাইটের পৃষ্ঠার উপর মেটা বর্ণনা সার্চ ইঞ্জিনকে জানিয়ে দেয় যে-আপনার পৃষ্ঠায় কি কি গুরুত্বপূর্ণ কীওয়ার্ড আছে। মেটা বিবরণ কীওয়ার্ড রাঙ্কিংয়ে সাহায্য করতে পারে। আপনি আপনার মেটা বর্ণনাটি এমনভাবে লিখবেন যেন শ্রোতাদের বুজতে সুবিধা হয় যে কি নিয়ে এই পোস্ট টি আপনি লিখেছেন।

চলমান…